দীপু নাম্বার টু মুহম্মদ জাফর ইকবাল pdf

0
58

দীপু নাম্বার টু কিশোর উপন্যাস। মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখা দীপু নাম্বার

টু বইটি কিশোর উপন্যাস। এইদীপু নাম্বার টু বইটি আমাদের এখান থেকে সহজেই

ডাউনলোড করে নিতে পারবেন এবং ঘরে বসে করতে পারেন। মুহম্মদ জাফর

ইকবালের এই বইটি অসাধারণ বই। দীপু নাম্বার 2 পিডিএফ। 

দীপু নাম্বার টু জাফর ইকবাল pdf

দীপু নাম্বার টু বই ডাউনলোড


দীপু নাম্বার টু বইটি সম্পর্কে আরও কিছু

বইয়ের নামঃ দীপু নাম্বার টু

লেখকঃ মুহম্মদ জাফর ইকবাল

ভাষাঃ বাংলা

পিডিএফ সাইজঃ ৭ এমবি

পাতাঃ ৮৭

প্রকাশকঃ 

বিষয়ঃ কিশোর উপন্যাস


দীপু নাম্বার টু বই রিভিউ

জাফর ইকবাল স্যারের শিশু কিশোর উপন্যাসের মধ্যে অন্যতম হলো “দীপু নাম্বার টু”

উপন্যাসটি। এখানে বাস্তবধর্মী চরিত্র উপস্থাপন করা হয়েছে।আমাদের শৈশবে ঘটে

যাওয়া বিভিন্ন ঘটনাকে উপস্থাপন করা হয়েছে এই উপন্যাসটিতে। উপন্যাসটিতে দিপু

নামের একটি ছেলে রয়েছে।সে খুব নম্র ভদ্র এবং ছাত্র হিসেবে অনেক ভালো।ক্লাসে

ফার্স্ট হতে না পারলেও সেকেন্ড থার্ড নিশ্চয়ই হতে পারে।   তার বাবা সরকারি চাকরি

করে। তাই তার চাকরির ক্ষেত্রে প্রত্যেক বছরই দিপুকে স্কুল পাল্টাতে হয়। এমন কোন

স্কুল নেয় যে যেখানে দিপু দুই বছর টানা পড়েছে। তার বাবার  নাকি এক জায়গায়

থাকতে ভীষণ বিরক্ত লাগে।দিপুর মা নেই তার বাবা বলেছে তার মা মারা গিয়েছে।

দিপুর প্রতিবছরই স্কুল পাল্টাতে হয় তা নিয়ে তার কোনো আফসোস নেই।তার শুধু

একটি আফসোস যে তার প্রতি বছর ঘনিষ্ঠ বন্ধু গুলো কে ছেড়ে অন্যত্র চলে যেতে হয়।

তার প্রতি বছরে যে কোন স্কুলে গেলে তাকে প্রথম দিন হাসির পাত্র হতে হয়।

তেমনি ভাবে এবার গিয়েছে নির্জন এক পাহাড়ি স্কুলে। যেখানে তার প্রথম দিনেই হাসির

পাত্র হতে হয়েছে। কিন্তু কিছুদিনের মধ্যেই সে ক্লাসের অন্যান্য ছেলেদের সাথে তার

বন্ধুত্ব হতে লাগল। শুধুমাত্র একজন বাদে তার নাম হলো তারেক। সে হল ক্লাসের

বকাটে ছেলে। অন্যান্য ছেলেরা তাকে খুব ভয় পাই।কিন্তু দিপু কোনভাবে ভয় পাওয়ার

পাত্র নয়।কোন কিছু হলেই সে তারেকের সাথে ঝগড়ায় মেতে পরে। এবং তারেকের

কাছ থেকে অনেক মার খায়।কিন্তু সে কাউকে বলে না। কারণ  তার বাবা তাকে

শিখিয়েছে  যে, যেই পরিস্থিতি আসুক না কেন তার নিজেকেই লড়তে হবে। কিন্তু দিপু

পরবর্তী দেখল যে তারেকের বকাটে হওয়ার পিছনে মূল কারণ হল তারেকের মায়ের

পাগল হয়ে যাওয়া।  এবং আস্তে আস্তে দিপু এবং তারেকের মধ্যে বন্ধুত্ব হতে শুরু হতে

লাগলো। এক পর্যায়ে তারেক এবং দিপুর খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধুতে পরিণত হল।কিছুদিন যেতে

না যেতেই তারা শুনলো যে পাহাড়ের খাদের নিচে চোরদের রাখা বিভিন্ন মালামাল

রয়েছে তারা এবং তাদের বন্ধুরা মিলেছে মালামালগুলো উদ্ধার করার জন্য  অভিযানে

নেমে পড়ে এবং এক পর্যায়ে চোরদের হাতে তারেক  ধরা পড়ে যায়।দিপুর বিচক্ষনতা ও

বুদ্ধির সাহায্যে সে তারেককে চোরদের হাত থেকে রক্ষা করে এবং মালামালগুলোও

রক্ষা করল। এবং পরবর্তীতে তারা সরকারের কাছ থেকে এমন বীরত্বের জন্য নগর

টাকা পায় পুরষ্কার হিসেবে।সে টাকা দিয়ে তারা তারেকের মায়ের চিকিৎসা করায়। কিন্তু

তারেকের এবং দিপুর বন্ধুত্ব বেশিদিন টিকে থাকতে পারেনি। কারণ দিপুর বাবার কারণে

যে তাকে চলে যেতে হলো অন্য এক স্কুলে সবাইকে ছেড়ে।     

মুহম্মদ জাফর ইকবাল এর অন্যান্য বই ডাউনলোড করার জন্য আমাদের সাইটে

নিয়মিত ভিজিট করুন এবং আমাদের যেকোনো বইয়ের আপডেট দ্রুত পেতে

আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here